দুই ধারে এবং মাঝখানে

দুই ধারে সবুজ ধানক্ষেত, আর তার মাঝে রাস্তা দিয়ে ছুটে চলতে হলে – বরিশাল থেকে ফরিদপুর।
দুই ধারে পাটকাঠি আর সোনালী আঁশ, তার মাঝের রাস্তা দিয়ে ছুটে চলতে হলে – ফরিদপুরের ভাঙ্গা মোড় থেকে মাওয়া ঘাট।
দুই ধারে পানি আর পানি, আর তার মাঝে রাস্তা দিয়ে ছুটে চলতে হলে – সিলেট থেকে তামাবিল।
দুই ধারে সবুজ গুল্ম (আলুর ক্ষেত), আর তার মাঝে রাস্তা দিয়ে ছুটে চলতে হলে – সিরাজগঞ্জ থেকে বগুড়া।
দুই ধারে বিশাল রুক্ষ ফাকা জায়গা, সাথে প্রচন্ড বাতাস, আর তার মাঝে রাস্তা দিয়ে ছুটে চলতে হলে – খুলনা থেকে মংলা।
দুই ধারে শুকোতে দেয়া নানান রঙ এর সুতা আর রঙিন কাপড়, তার মাঝে রাস্তা দিয়ে ছুটে চলতে হলে – ভুলতা থেকে নরসিংদী।
দুই ধারে ঘন জঙ্গল, রাস্তা অন্ধকার, আর তার মাঝে রাস্তা দিয়ে ছুটে চলতে হলে – শ্রীমঙ্গল থেকে মাধবকুন্ড।
দুই ধারে চা বাগান আর তার মাঝে রাস্তা দিয়ে ছুটে চলতে হলে – শ্রীমঙ্গল থেকে লাউয়াছড়া।

নিজ অভিজ্ঞতা থেকে এগুলো চিহ্নিত করেছি। আপনি কিছু যোগ করবেন?

About দারাশিকো

আমি নাজমুল হাসান দারাশিকো। লেখালিখির প্রতি ভালোবাসা থেকে লিখি। পেশাগত এবং সাংসারিক ব্যস্ততার কারণে অবশ্য এই ভালোবাসা এখন অস্তিত্বের সংকটে, তাই এই ওয়েবসাইটকে বানিয়েছি আমার সিন্দুক। যোগাযোগ - darashiko(at)gmail.com

View all posts by দারাশিকো →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *